এই হাসপাতালে পাথর রোগের চিকিৎসা সমূহ

 পেট না কেটে অত্যাধুনিক মেশিনের মাধ্যমে ফুটো করে কিডনীর পাথর বের করা হয় (PCNL)। গত বছরে এই হাসপাতালে প্রায় ৬ হাজার রোগীর এই পদ্ধতিতে পাথর বের করা হয়েছে। এক্ষেত্রে আমাদের সফলতার হার ৯৯%।

 পেট না কেটে ক্রাশ পদ্ধতিতে কিডনীর পাথরের চিকিৎসা এই হাসপাতালে করা হয় (ESWL)। এতে হাসপাতালে থাকার প্রয়োজন পড়ে না। দুই থেকে তিন ঘন্টার মধ্যে রোগী চলে যেতে পারে। গত বছরে এই হাসপাতালে প্রায় ছয় শতাধিক রোগীর এই পদ্ধতিতে চিকিৎসা করা হয়েছে। এক্ষেত্রে আমাদের সফলতার হার ৯২%।

 কিডনীর নালীতে পাথর হলে তা কোন কাটা ছাড়াই অত্যাধুনিক মেশিনের মাধ্যমে বের করা হয় (URS + ICPL)। এই অপারেশনের ক্ষেত্রেও রোগীর হাসপাতালে থাকার দরকার হয় না। ৩-৪ ঘন্টার মধ্যে রোগী চলে যেতে পারে। গত বছরে এই পদ্ধতিতে শতাধিক রোগীর পাথর বের করা হয়েছে।

 মুত্রথলিতে পাথর হলে তাও কোন কাটা ছাড়াই অত্যাধুনিক মেশিনের মাধ্যমে বের করা হয় (Cysolitholapaxy)। এই ক্ষেত্রে রোগী ৩-৪ ঘন্টা পর বাসায় চলে যেতে পারে।

কিডনী, প্রস্রাবের রাস্তা এবং অন্ডকোষের জন্মগত ত্রুটির অপারেশন সমূহ

 জন্মগত ভাবে কিডনী এবং মুত্রনালীর সংযোগস্থলে বাধা থাকলে তা অপারেশনের মাধ্যমে দুর করা হয়। এক্ষেত্রে রোগীর ঐ কিডনী বিকল হওয়া থেকে রক্ষা পায় (Pyeloplasty)।

 জন্মগত ভাবে প্রস্রাবের রাস্তা লিঙ্গের নিম্ন ভাগে অবস্থান করলে তা অপারেশনের মাধ্যমে ঠিক করা হয় (Hypospediasis Repair)।

 জন্মগত ভাবে অন্ডকোষ পেটের মধ্যে থাকলে তা অপারেশনের মাধ্যমে সঠিক জায়গায় আনা হয় (Orchidopexy) ।

কিডনী বিকল রোগের চিকিৎসা সমুহ

  কিডনী প্রতিস্থাপন: যে সব রোগীর দুটি কিডনীই সম্পূর্ণ অকেজো হয়ে গেছে, তাদের কিডনী প্রতিস্থাপন প্রয়োজন হয়। গত বছরে এই হাসপাতালে ১২১ টি কিডনী প্রতিস্থাপন করা হয়েছে। আমাদের কিডনী প্রতিস্থাপনে সফলতার হার ৯৪%।

 ডায়ালাইসিস (Dialysis): এই হাসপাতালে কিডনী বিকল রোগীদের তুলনামূলক কম খরচে ডায়ালাইসিসের ব্যবস্থা আছে। আমাদের ১০ বেডের পৃথক ডায়ালাইসিস ইউনিটে গত বছরে প্রায় ১২০০০+ ডায়ালাইসিস করা হয়েছে।

 CAPD: এই পদ্ধতিতে রোগী নিজে নিজে বাসায় ডায়ালাইসিস করতে পারে। আমাদের হাসপাতালে এই পদ্ধতিরও ব্যবস্থা আছে।

পেট না কেটে যন্ত্রের মাধ্যমে কিডনী ও মুত্রনালীর বিভিন্ন অপারেশন সমূহ

 প্রস্রাবের রাস্তায় মাংশ বৃদ্ধি পেলে (প্রস্টেট গান্ড) পেট না কেটে অত্যাধুনিক মেশিনের মাধ্যমে অপসারন করা হয় (TURP)।

 মুত্রথলিতে টিউমার হলে তা অত্যাধুনিক যন্ত্রের মাধ্যমে পেট না

 প্রস্রাবের রাস্তা চিকন/ সরু হলে তা পেট না কেটে অত্যাধুনিক মেশিনের মাধ্যমে প্রশমন করা হয় (OIU)।

কিডনী ও মুত্রনালীর ক্যান্সার রোগের চিকিৎসা সমূহ

 কিডনীতে ক্যান্সার হলে তা অপারেশনের মাধ্যমে অপসারন করা হয় (Radical Nephrectomy)।

 কিডনীতে কিছু অংশ ক্যান্সার হলে সে ক্ষেত্রে ঐ ক্যান্সারযুক্ত অংশটুকু ফেলে দিয়ে বাকীটুকু রাখা হয়। (Partial Nephrectomy)।

 সম্পুর্ন মুত্রথলিতে ক্যান্সার হলে সেক্ষেত্রে মুত্রথলি ফেলে দিয়ে কৃত্রিমভাবে প্রস্রাবের ব্যবস্থা করা হয়। (Radical Cystectomy Diversion)।

প্রস্রাবের রাস্তা পুনর্গঠনের অপারেশন সমূহ

 দুর্ঘটনায় ছিড়ে যাওয়া প্রস্রাবের রাস্তা পুনর্গঠন করা হয় (Anastomotic Urethroplasty))।

 মুখের ভিতর থেকে ঝিলি নিয়ে সরু প্রস্রাবের রাস্তা পুনর্গঠন করা হয় (BMG Urethroplasty)।

কিডনী মেডিসিন (নেফ্রোলজি) বিষয়ে চিকিৎসা সমূহ

 এই হাসপাতালে প্রতিদিন বহির্বিভাগে ২জন কিডনী রোগ বিষেশজ্ঞ এবং ১জন শিশু কিডনী রোগ বিষেশজ্ঞ দুপুরে ও রাতে রোগী দেখে থাকেন।

 Renal Biopsy: আল্ট্রাসনোগ্রাম মেশিনের সাহায্যে কিডনী বায়োপসি করার সু-ব্যবস্থা আছে।

 Dialysis Catheter: ডপলার আল্ট্রাসনোগ্রাম মেশিনের সাহায্যে গলায় অথবা পায়ে ক্যাথেটার পরানো হয়।

 Permanent Catheter: ফিস্টুলা করা সম্ভব না হলে এই ধরনের ক্যাথেটার বসানোর সু-ব্যবস্থা আছে।

 CAPD Catheter: এই পদ্ধতিতে রোগী নিজে নিজে বাসায় ডায়ালাইসিস করতে পারে। আমাদের হাসপাতালে এই পদ্ধতিরও ব্যবস্থা আছে।

 Diabetic Clinic & Hypertension Clinic-এর মাধ্যমে ডায়াবেটিস ও হাই প্রেসার রোগীদের সু-চিকিৎসার ব্যবস্থা আছে।

প্রস্রাব ঝরার অপারেশন সমূহ

 যে সব মহিলাদের হাঁচি, কাশি, নামাজের রুকু দেওয়ার সময় প্রস্রাব ঝরে তাদের এই ধরনের অসুবিধা সমূহ অপারেশনের মাধ্যমে দূর করা হয় (TVT Insertion)।

 মহিলাদের অপারেশনের পরে মাসিকের রাস্তায় প্রস্রাব ঝরলে অপারেশনের মাধ্যমে ঠিক করা হয় (VVF Repair)।